বাংলায় প্রযুক্তি টিপস ও টিক্স

Whatsapp নাকি imo কোনটি ভালো হবে

Whatsapp নাকি imo

বাংলাদেশে ইন্টারনেট ইউজারদের মধ্যে Whatsapp বা imo ব্যবহার করেনি এমন মানুষ পাওয়া যাবে না । ইন্সট্যান্ট মেসেজিং অ্যাপের মাধ্যে এই দুই অ্যাপ বাংলাদেশে বেশি ব্যবহার হয় । তাই অনেকে বলে Whatsapp নাকি imo কোনটা ব্যবহার করব ।

এই দুই অ্যাপের মাধ্যে একটা থেকে অন্যটা একটু ভিন্ন । তবে সাধারণ কিছু মিল রয়েছে যেমন মোবাইল নম্বর দিয়ে খুব সহজে অ্যাকাউন্ট তৈরি করা যায় । ফোনের সেভ করা নম্বর খুব সহজে ব্যবহার করা যায় ।

Whatsapp নাকি imo এর মধ্যে তুলনা

ডাউনলোড

বর্তমান Whatsapp ডাউনলোড সংখ্যা ৫+ বিলিয়ন বার ।তাদের রেটিং ৩+ রিভিউ আছে ১৭০ মিলিয়ন । Imo  ডাউনলোড হয়েছে ১+ বিলিয়ন বার । রেটিং আছে ৩+ রিভিউ আছে ৭ মিলিয়ন ।

জনপ্রিয়তা

ডাউনলোডের দিকে তাকালেই বোঝা যায় কোন অ্যাপ কত জনপ্রিয় । পৃথিবীর প্রায় সকল দেশের ইন্টারনেট ইউজার Whatsapp ব্যবহার করে । অন্য দিকে মধ্যপ্রাচ্যের বিভিন্ন দেশ ও বাংলাদেশ, ভারত, পাকিস্থান, মালায়েশিয়া এই সকল দেশের মানুষ এই অ্যাপ ব্যবহার করে imo । কারণ Whatsapp মধ্যেপ্রাচ্যের বিভিন্ন দেশে নিষিদ্ধ । এই জন্য ইমো জনপ্রিয়তা বেশি ।

লোকেশন শেয়ারিং

Whatsapp এ খুব সুন্দর ভাবে যেকোনো জায়গায় লোকেশন শেয়ার করা যায় । বর্তমান লোকেশন যেকোনো কন্ট্র্যাক্ট নম্বরে শেয়ার করা যায় । এখন পর্যন্ত ইমো এমন সুবিধা নিয়ে আসে নি । দেখা যাক ভবিষ্যৎ এ এমন সুবিধা নিয়ে আসে কি না ।

ভাষা ও গ্রুপ

বর্তমানে whatsapp এ ৬৪টি ভাষা সাপোর্ট করে অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপে । whatsapp গ্রুপে ৫০০০ মেম্বার অ্যাড করা যায় । যেকোনো গ্রুপের লেখা ৫০০০ মেম্বারের কাছে পৌছাবে । অন্যদিকে ইমোতে গ্রুপ ভিডিও কলে ২০ জন মেম্বার অ্যাড করা যায় । এছাড়া বিগ গ্রুপে মেম্বার অ্যাড করা যায় ।

ফাইল শেয়ারিং

ইমোতে শুধুমাত্র অল্প কিছু পরিমাণে ছবি ও ভিডিও অন্য মানুষের কাছে শেয়ার করা যায় । অন্য দিকে whatsapp  ভিডিও, অডিও, ছবি, পিডিএফ ফাইল শেয়ার করা যায় । এছাড়া  আরও অনেক সুযোগ সুবিধা আছে ।

Whatsapp নাকি imo প্রাইভেসি

ইমো ও হোয়াটয়্যাপ এর প্রাইভেসি নিয়ে অনেক বেশ বিতর্ক আছে । তাদের উভয়েরই ডাটা চুরির অভিযোগ আছে । তবে আগের চেয়ে হোয়াটয়্যাপ এ এখান ডাটা আরও বেশি সেভ বলা যায় । তবে একটা কথা সব সময় মনে রাখবেন যে সার্ভিস আপনি টাকা দিয়ে কিনে ব্যবহার করছেন না সেখানে আপনি নিজেই একটা পণ্য । কারণ আমাদের তথ্য তারা বিভিন্ন থার্ড পার্টির কাছে বিক্রি করে থাকে ।

Whatsapp নাকি imo ডাটা এনক্রিপশন

হোয়্যাটয়্যাপ একটা এন্ড-টু-এন্ড এনক্রিপ্টটেড সাইট । তারা কোনো গ্রাহকের তথ্য দেখতে পাই না বলে । তাই বলা যায় ইমোর থেকে হোয়াটয়্যাপ ভালো । তবে ইমোতে ডাটা প্রটেকশনের ক্ষেত্রে এমন কোনো নির্দেশনা দেওয়া নেই ।

এবার উপরের সকল কিছু পড়ে বিবেচনা করে আপনার মতামত অনু্যায়ী যেকোনো একটা অ্যাপ ব্যবহার করতে পারেন । তবে আমার মনে হয় হোয়াটয়্যাপ ব্যবহার করা ভালো সকল দিক দিয়ে ।

আরও পড়ুনঃ ইমোতে কল রেকর্ড (অডিও + ভিডিও) কিভাবে

Share on facebook
Facebook
Share on twitter
Twitter
Share on linkedin
LinkedIn
Share on pinterest
Pinterest
Share on telegram
Telegram

আমাদের সাথে সোশ্যাল মিডিয়াতে থাকতে

আমাদের ফেসবুক পেজ এই লিংকে ক্লিক করুন

আমাদের সাথে গুগল নিউজে থাকার জন্য ফলো করুন এই লিংককে ক্লিক করুন

ফেসবুক গ্রুপে আপনার যেকোনো প্রশ্ন/মতামত এই লিংকে ক্লিক করুন

আমাদের সাথে টুইটারে থাকেতে এই লিংকে ক্লিক করুন

আমাদের সাথে পিন্টারেস্টে থাকতে এই লিংকে ক্লিক করুন

সব কিছু একই সাথে পেতে  https://techzoombd.com

1 thought on “Whatsapp নাকি imo কোনটি ভালো হবে”

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Latest Post

আরও অন্য বিষয়ে পড়ুন

x