Techzoombd

ন্যানোটেকনোলজি কি সুবিধা অসুবিধা ও এর জনক

ন্যানোটেকনোলজি

ন্যানোটেকনোলজি কে আমরা বিভিন্ন নামে চিনে  থাকি । যেমন কেউ বলে থাকে ন্যানোটেক আবার কেউ বলে ন্যানোপ্রযুক্তি কেউ বলে ন্যানোটেকনোলজি ।  তবে যে যাই বলুক না কেন একটাই সেটা হলো ন্যানো টেকনোলজি ।

আমরা ন্যানোটেকনোলজি বলতে বুঝি একটি পরমাণু  এবং আনবিক স্কেলের নিকটতম ম্যানিপুলেশন । আগামীর শতক জুড়ে রয়েছে ন্যানো টেকনোলজির এক অংশ এখানে সবকিছু  ন্যানো টেকনোলজির উপর নির্ভর হয়ে যাবে । 

ন্যানোটেকনোলজি কি

ন্যানো একটি গ্রিক শব্দ । যার অর্থ হলো ছোট বা ক্ষুদ্র ।  কোন ধূলিকণার এক লাখ  ভাগের এক ভাগ অতিক্ষুদ্র যে বস্তু টিকে থাকে সেটা মূলত ন্যানো  বলা হয় । এই ছোট বস্তুর সাহায্যে তৈরি ক্ষেত্রে প্রযুক্তির সংমিশ্রণ ঘটানো হয় ন্যানোপ্রযুক্তি বলে ।

উন্নত বিশ্বে ন্যানো প্রযুক্তির সাহায্যে বিভিন্ন ধরনের কার্যক্রম করে থাকে এবং কার্যক্রম আরও দ্রুত করার জন্য প্রচুর পরিমাণ টাকা বিনিয়োগ করে যাচ্ছে। 

প্রযুক্তি ,ইলেকট্রনিক, খাদ্য সংরক্ষণ চিকিৎসা বিজ্ঞান, রাসায়নিক প্লান্ট , অটোমোবাইল ইত্যাদি ক্ষেত্রে ন্যানো  প্রযুক্তির ব্যবহার হচ্ছে । আগামী যুগ যে ন্যানো প্রযুক্তির যুগ তা বলার অপেক্ষা রাখে না । 

ন্যানোটেকনোলজির জনক 

আমেরিকার পদার্থবিজ্ঞানী রিচার্ড ফাইনম্যান ন্যানো টেকনোলজির জনক  । তিনি সর্বপ্রথম ন্যানো টেকনোলজি সম্পর্কে বলেন  ১৯৫৯  সালে ২৯ ডিসেম্বর এক আলোচনা সভায় । এর পর থেকে ন্যানো প্রযুক্তি সম্পর্কে বিভিন্নভাবে আলোচন হতে থাকে ।

সুবিধা

 Nanotechnology আমাদের কি কি সুবিধা দিতে পারে ।  সে সম্পর্কে জানা   আমাদের একান্ত প্রয়োজন ।

১) Nanotechnology আকারে ছোট টেকসই মজবুত এবং উন্নত মানের পণ্য তৈরি করতে পারে । যা অন্য কোন প্রযুক্তি তৈরি করতে পারে না ।

২) সবচেয়ে উন্নত প্রসেসর যুক্ত ডেক্সটপ কম্পিউটার তৈরিতে ন্যানোটেকনোলজি ব্যাপক ভূমিকা রাখবে আগামী দিনগুলোতে ।

৩)  অতি ক্ষমতা সম্পন্ন  স্টোরেজ  ডিভাইস  তৈরি করবে  Nanotechnology যা  মানুষের ধারণাকে পাল্টে দেবে।

৪) শক্তিশালী সব যুদ্ধ অস্ত্র তৈরিতে ব্যাপক ভূমিকা রাখবে । 

৫) Nanotechnology মাধ্যমে সোলার প্যানেল কে আরও শক্তিশালী টেকসই ও উন্নত তৈরি করা যাবে ব্যাটারি শিল্পে শিল্পের ব্যাপক পরিবর্তন নিয়ে আসবে ।যার ফলে সস্তা ও উন্নত মানের সোলার এনার্জি তৈরি করা যাবে মানুষের কল্যাণে ব্যাপক ভূমিকা রাখতে পারবে ।

৬) Nanotechnology ফলে চিকিৎসাক্ষেত্রে আসবে ব্যাপক পরিবর্তন যা সহজে মানুষ কঠিন রোগ থেকে আরোগ্য লাভ করবে চিকিৎসা ক্ষেত্রে হবে  পরিবর্তন  । 

৭) ন্যানো Nanotechnology ফলে কম্পিউটার হার্ডওয়ার এর আরো সহজলভ্য হবে মানুষের কাছে পৌঁছে যাবে এবং টেকসই হবে ।  মহাকাশ যান আরো সহজে তৈরি করা যাবে এবং রোবট আরো সহজেই আরো উন্নত সেবা দিতে থাকবে মানুষজনদের ।

ন্যানোটেকনোলজির অসুবিধা সমূহ

ন্যানো টেকনোলজি তে সুবিধা থেকে অসুবিধার পরিমাণ খুবই কম থাকবে অল্প কিছু অসুবিধা মানুষ গ্রহণ করতে পারলে ব্যাপক পরিমাণে সুবিধা গ্রহণ করতে পারবে ন্যানোটেকনোলজি থেকে । কয়েকটি অসুবিধাসমূহ  তুলে ধরা হলো ।

১) ন্যানোটেকনোলজিতে বিনিয়োগের পরিমাণ ব্যাপক যা মানুষের খরচের পরিমাণ আরো বেশি বাড়িয়ে দিবে ।

২)  ন্যানো প্রযুক্তিতে এখানে ন্যানোমিটার অত্যন্ত ছোট হয়ে থাকে এটা মানুষের শরীরে প্রবেশ করে মানুষের শরীরের বিভিন্ন প্রকার ক্ষতিসাধন করতে পারে  । 

ন্যানো প্রযুক্তি সম্পর্কে যদি আরো কিছু জানার থাকে তাহলে জানাতে পারেন কমেন্ট এর মাধ্যমে

আরও পড়ুনঃ যে সফট স্কিল গুলো বর্তমান সময়ে থাকা প্রয়োজন

Share on facebook
Facebook
Share on twitter
Twitter
Share on linkedin
LinkedIn
Share on pinterest
Pinterest
Share on telegram
Telegram

আমাদের সাথে সোশ্যাল মিডিয়াতে থাকতে

আমাদের ফেসবুক পেজ এই লিংকে ক্লিক করুন

আমাদের সাথে গুগল নিউজে থাকার জন্য ফলো করুন এই লিংককে ক্লিক করুন

ফেসবুক গ্রুপে আপনার যেকোনো প্রশ্ন/মতামত এই লিংকে ক্লিক করুন

আমাদের সাথে টুইটারে থাকেতে এই লিংকে ক্লিক করুন

আমাদের সাথে পিন্টারেস্টে থাকতে এই লিংকে ক্লিক করুন

সব কিছু একই সাথে পেতে  https://techzoombd.com

2 thoughts on “ন্যানোটেকনোলজি কি সুবিধা অসুবিধা ও এর জনক”

  1. খুবই গুরুত্বপূর্ণ একটি বিষয় শেয়ার করেছেন। ন্যানো টেকনোলজির বিষয়টি বিস্তারিতভাবে জানতে পারলাম।

Leave a Comment

Your email address will not be published.

Latest Post

আরও অন্য বিষয়ে পড়ুন