Techzoombd

নতুন ফোন কেনার পরে যে কাজগুলো করা উচিত

নতুন ফোন

নতুন ফোন ক্রয় করার প্রবণতা আমাদের মাঝে প্রতিনিয়ত বাড়ছে । কারণ মানুষ কোনো সময় পুরাতন জিনিসকে আকড়ে ধরে রাখতে চায় না । নিউ মোবাইল মানেই নতুন কিছু । আর যারা নিউ স্মার্টফোন ক্রায় করে থাকে তাদের কাছে অনেক বেশি রঙিন লাগে ।

আর যাদের পুরাতন স্মার্টফোন থেকে নিউ ভার্সনে আসে তাদের কাছে অনেক কিছু নিউ লাগে । ফোন কোম্পানিগুলো তাদের নতুন নতুন আপডেট করে ।  যার কারণে আমাদেরও নিউ মোবাইল ক্রয় করতে হয় ।

নতুন ফোন এর ভার্সন বনাম পুরাতন ফোনের ভার্সনের জন্য কিছু কথা

আমার একটা ঘটনা বলি । আমার একটা সিম্ফনিফোন আছে যার অ্যান্ড্রয়েড ভার্সন ৮ । তাই বলা যায় এটা অনেক পুরাতন একটা মোবাইল । কারণ এখন অ্যান্ড্রয়েডের ১২ ভার্সনের মোবাইল মার্কেটে চলে এসেছে । যাই হোক ।

আমি নতুন একটা রিয়েলমি ফোন কিনেছি যার অ্যান্ড্রয়েড ভার্সন ১১ । এখন দেখছি অ্যান্ড্রয়েডের ৮ ভার্সন থেকে ১১ ভার্সনের অনেক পার্থক্য দেখা যাচ্ছে । আগের থেকে এখন অনেক ফাংশন  ও সুবিধা বেড়েছে । অনেক বেশি ও স্মুথভাবে করা যাচ্ছে ।

তাই বলা যায় মোবাইল ফোনের অনেক বেশি সুযোগ সুবিধা আছে । তবে আমাদের নতুন ফোন কেনার পর কিছু কাজ করতে হয় তাহলে আমাদের ফোন ইউজার এক্সপেরিয়েন্সটা অনেক বেশি ভালো হয় ।

নতুন ফোন কেনার পরে যে কাজগুলো করতে হবে

১)বাজেট একটু বেশি রাখ

মোবাইল কেনার সময় কেন একটু বেশি বাজেট রাখতে হবে তা নিচে আলোচনা করছি । মোবাইলের সাথে একটু অল্প কিছু খরচ থেকে যায় যেগুলো আমাদের দরকার । তাই দেখে নিন ।

 ২)স্কিন প্রটেক্টর লাগানো

আমরা নতুন ফোন কেনার সময় উত্তেজিত থাকার কারণে অনেক বেশি টাস স্কিন সোয়াইপ করতে থাকি ।  বা দেখা যায় যে, প্যান্টের পকেটে রাখি কেমন দেখায় এটা দেখার জন্য । এতে করে দেখা যায় মোবাইলে এর স্কিনে দাগ পড়ে যায় ।

তাই মোবাইল কেনার সাথে সাথে একটা ভালো মানের স্কিন প্রটেক্টর লাগানো । স্কিন প্রটেক্টর আমাদের মোবাইলের অনেক বেশি সেইফ করে থাকে । ভুল করে পড়ে গেলেও তেমন কোনো ক্ষতির সম্ভাবনা থাকে না ।

 স্কিন প্রটেক্টর নিয়ে আমার একটা ঘটনা বলি । কিছু দিন আগে আমার ফোন প্যান্টের পকেটে ছিল । আর স্কিন পাশটা ছিল উপরের দিকে । কোচিং এর বেঞ্চে ঘসা লেগেছিল । ফোনটা বের করে দেখি তেমন কোনো ক্ষতি হয় নি ।

শুধুমাত্র স্কিন প্রটেক্টর এর উপর এক জায়গায় হালকা ফেটে ও গর্ত মত হয়ে গিয়েছে । যদি স্কিন প্রটেক্টর না থাকত তাহলে  থাকে ফোনের টাস এর ক্ষতি হত ।

৩) গুগল অ্যাকাউন্ট লগইন করা

আমাদের দেশের অধিকাংশ মানুষ অ্যান্ড্রয়েড ফোন ব্যবহার করে থাকে । আন্ড্রয়েডের ফোনে গুগল আকাউন্ট ব্যবহার করলে আমরা অনেক সেবা ফ্রি পেয়ে থাকি । তার মধ্যে অন্যতম গুগল প্লে স্টোর । যেখান থেকে আমরা সব ধরনের অ্যাপ পেয়ে থাকি ।

এছাড়া পুরাতন ফোনে যদি আপনার কোনো গুগল অ্যাকাউন থাকে সেই টা লগইন করবেন । তাহলে দেখা যাবে যে, কোনো কিছু ব্যাক-আপ দেওয়া থাকলে আগের মত সব পেয়ে যাবেন । কোনো কিছু হারাবে না ।

গুগল অ্যাকাউন্ট থাকলেই আজীবনের জন্য আপনি ১৫ জিবি পর্যন্ত অনলাইন মেমরি পেয়ে যাবেন । যেখানে সকল ধরনের ফাইল, ফটো সংরক্ষণ করতে পারবেন ।

৪) নতুন ফোন এর ব্যাক কভার

দেখা যায় যে, আমরা ফোনের মডেল বা ডিজাইন দেখানোর জন্য ব্যাক কভার ব্যবহার করতে চায় না । কিন্তু দেখা যায় ব্যাক কভার অনেক বেশি কাজে দিয়ে থাকে । আপনার বাসায় যদি ছোট বাচ্চা থাকে তাহলে অবশ্যই ব্যাক কভার ব্যবহার করা উচিত ।

কারণ বাচ্চাদের কাছ থেকে বেশি পরিমাণ মোবাইল পড়ে যায় । অনেকে বেশি সময় ধরে মোবাইলে গেমস খেলে তখন বেশি পরিমাণ গরম হয় । তারা কোনো ভাবেই ব্যাক কভার ব্যবহার করতে চান না । তারা মোবাইলের জন্য বাম্পার কভার পাওয়া যায় এই গুলো ব্যবহার করতে পারেন ।

এইগুলো শুধুমাত্র ফোনের চারদিকের এরিয়া দিয়ে কাজ করে থাকে । এইগুলো খুব কাজের হয়ে থাকে । এছাড়া চাইনিজ ফোনে একটা সস্তা মানের ব্যাক কভার দিয়ে থাকে ।

৫)প্রয়োজনীয় অ্যাপ ইনস্টল ও অপ্রয়োজনীয় অ্যাপ আনইনস্টল

চাইনিজ প্রত্যেকটা ফোনে প্রায় তাদের মার্কেটিং এর জন্য অনেক অপ্রয়োজনীয় অ্যাপ ইনস্টল দিয়ে থাকে । এইগুলো নতুন ফোন কেনার সাথে সাথে আনইনস্টল করা । এছাড়া আপনার প্রয়োজনীয় সকল অ্যাপ ইনস্টল করে নেওয়া । যেগুলো আমাদের দরকার ছিল না সেগুলোও দিয়ে থাকে ।

৬) লক ব্যবহার করা / স্কিন পিন ব্যবহার করা

নতুন ফোন কেনার সাথে সাথে ফোনে লক ব্যবহার করা । দেখা যায় আপনার নতুন মোবাইলে  আগের ফোনের গুগল অ্যাকাউন্ট লগইন করার কারণে সব ডাটা চলে এসেছে । তাই লক ব্যবহার করলে যে কেও ব্যবহার করতে পারবে না ।

এছাড়া স্কিন পিন ব্যবহার করতে পারেন । স্কিন পিন ব্যবহার করলে  যেই পেজটা পিন করে দিবেন সেইটা ছাড়া কেও ব্যবহার করতে পারবে না । স্কিন পিন ব্যাপক কাজে দিয়ে থাকে ।  

৭) মোবাইলে চার্জ করা

মোবাইল কেনার সাথে সাথে কখনও গেম নেট ব্রাউজিং বা হেভি কোনো কাজ করবেন না । এই ধরনের কাজ করলে মোবাইলে ব্যাটরির উপর প্রভাব পড়ে । তাই ফুল চার্জ করার পরে ফোন ব্যবহার করা শুরু করবেন । এতে ফোনের কন্ডিশন ভালো পাবেন ।

৮) ব্যবহার সম্পর্কে জানা

নতুন ফোন মানেই নতুন ফাংশন আর নতুন সুবিধা । আপনার পুরাতন ভার্সনের ফোনের সাথে নতুন অ্যান্ড্রয়েড ফোনের ভার্সনের সাথে অনেক পার্থক্য আছে ।

যা আগের ফোনে নেই নতুন ফোনের অনেক কিছু আছে সেই গুলো চেক করা । যেগুলো আপনি আপনার সময় মত ব্যবহার করতে পারেন । মোবাইল কেনার উদ্দেশ্য যেন সফল হয় ।

আরও পড়ুনঃ স্মার্টফোন কেনার আগে যা যা জানতে হবে

Share on facebook
Facebook
Share on twitter
Twitter
Share on linkedin
LinkedIn
Share on pinterest
Pinterest
Share on telegram
Telegram

আমাদের সাথে সোশ্যাল মিডিয়াতে থাকতে

আমাদের ফেসবুক পেজ এই লিংকে ক্লিক করুন

আমাদের সাথে গুগল নিউজে থাকার জন্য ফলো করুন এই লিংককে ক্লিক করুন

ফেসবুক গ্রুপে আপনার যেকোনো প্রশ্ন/মতামত এই লিংকে ক্লিক করুন

আমাদের সাথে টুইটারে থাকেতে এই লিংকে ক্লিক করুন

আমাদের সাথে পিন্টারেস্টে থাকতে এই লিংকে ক্লিক করুন

সব কিছু একই সাথে পেতে  https://techzoombd.com

Leave a Comment

Your email address will not be published.

Latest Post

আরও অন্য বিষয়ে পড়ুন

x