Techzoombd

টিকটকে ভাইরাল হওয়ার ১০ উপায় জেনে নিন

টিকটকে ভাইরাল

যে কোনো বিষয়ে কে না সফল হতে চায় । তেমনি টিকটকে ভাইরাল হওয়ার জন্য অনেকে অনেক কাজ করে থাকে । তবে এখানে আপনি রাতারাতি সফল হতে পারেন আবার অনেকে দিন ধরে কাজ করেও সফল হতে পারেন না ।

টিকটকে ভাইরাল হওয়ার জন্য অনেক বিষয় খেয়াল রাখতে হয় । এখানে সবাই ভাইরাল হতে চায় । কারণ ভাইরাল হলে অনেক মানুষ চেনে । তাছাড়া আপনি যদি কোনো প্রডাক্ট প্রমোট করতে চান তাহলে এখানে ভাইরাল হওয়া ছাড়া বিকল্প কোনো কিছু নেই ।

তাই আজকে আমরা কিছু নিয়ম এখান তুলে ধরব যার মাধ্যমে আপনি খুব সহজে টিকটকে সফল বা ভাইরাল হতে পারেন । চলুন দেখে নেওয়া যাক ।

টিকটকে ভাইরাল হওয়ার ১০ উপায়

১) নিয়মিত ভিডিও দেওয়া

টিকটকে ভাইরাল হতে হলে আপনাকে নিয়মিত ভিডিও দিতে হবে । এখানে যদি আপনি একটা ভিডিও দিয়ে রেখে দেন আর না দেন কখনও আপনার ভিডিও র‍্যাংক করবে না । প্রতিনিয়ত ভিভিও দিতে হবে ।

২) ভিডিও এর লেন্থ

ভিডিও লেন্থ মানে ভিডিও কতটুকু লম্বা হবে । টিকটকে আপনি সবোর্চ ৫ মিনিটের ভিডিও দিতে পারবেন । এর বেশি ভিডিও আপলোড করতে পারবেন না । আপনার ভিডিও ভাইরাল হতে হলে ১৫ সেকেন্ড এর ভিডিও দিতে হবে । ১৫ সেকেন্ড এর ভিডিও টিকটক কোম্পানি বেশি প্রমোট করে থাকে ।

৩) ট্রেন্ডিং ভিডিও

টিকটকে সব সময় ট্রেন্ডিং ভিডিও তৈরি করতে হবে । আপনার যদি টিকটকে অ্যাকাউন্ট থাকে তাহলে দেখবেন টিকটক কোম্পানি মেসেজ দিবে ট্রেন্ডিং বিষয়ের উপর ভিডিও তৈরি করার জন্য । তাই ট্রেন্ডিং ভিডিও তৈরি করুন ।

৪) হ্যাশ ট্যাগ ব্যবহার

টিকটকে প্রচুর প্ররিমাণে হ্যাশটাগের ভিডিও কাজ করে থাকে । এখন যে বিষয়ের উপর ট্রেন্ডিং হ্যাশ ট্যাপ আছে সেই হ্যাশ ট্যাপ ব্যবহার করে ভিডিও বানালে বেশি ভাইরাল হবেন ।

৫) গেম খেলা

মাঝেমাঝে দেখবেন টিকটক কোম্পানি গেম নিয়ে আসে । আপনি যদি সেই সব গেম খেলে ভিডিও আপলোড দিতে পারেন তাহলে বেশি পরিমানে ভাইরাল হতে পারেন ।

৬) ভিডিওতে ইফেক্ট ব্যবহার

টিকটক বলা যায় ইফেক্টের রাজা । আপনার ভিডিওতে যদি যথাযথা ইফেক্ট দিতে পারেন তাহলে ভিডিও খুব তাড়াতাড়ি ভাইরাল হবে ।

৭) কমেন্টের রিপ্লে দেওয়া

ভিডিও এর নিচে অনেকে কমেন্ট করে থাকে । সেই কমেন্টের যদি যথাযথ রিপ্লে করতে পারেন তাহলে অনেক বেশি পরিমাণে আপনার ভিডিও এর ভিউ হবে ।

৮) ভিডিও ড্রাফট করে না রাখা

দেখা যায় আপনি একটা ভিডিও শট দিয়েছেন । দেওয়ার পর আপলোড দিয়েছেন । দেওয়ার পর দেখলেন কিছু অংশ বাদ দিলে ভালো হত । এর জন্য ভিডিওটি ড্রাফট করে রাখলেন । এই ড্রাফট এর জন্য আপনার ভিডিও ভাইরাল নাও হতে পারে । কারণ টিকটিক কোম্পানি ড্রাফট বিষয়টা পছন্দ করে না ।

৯) রোস্টিং ভিডিও না দেওয়া

টিকটক এ কখনও রোস্টিং ভিডিও দিবেন না । রোস্টিং ভিডিও দিলে আপনার অ্যাকাউন্ট ফ্রিজ করে দিতে পারে টিকটক কোম্পানি

১০) ভিডিও পাবলিশ

ভিডিও পাবলিশ করার সময় একটা বিষয় খেয়াল রাখবেন ভিডিও যেন Everyone করা থাকে । কোনো ভাবেই যেন Private করা না থাকে । তাহলে ভিডিওর কোনো ভিউ হবে না ।

১১) কভার ফটো ব্যবহার করা

যেকোনো ভিডিও পাবলিশ করার জন্য কভার ফটো ব্যবহার করা । ইউটিউবে যেটা থাম্বনেইল বলে । এই কভার ফটো যেকোনো ভিডিও এর জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ । যে যেগুলো দেখে আপনার ভিডিও দেখবে মানুষ । বলা যায় যে এই বিষয়গুলো যদি মেনে চলেন ।

তাহলে আপনার টিকটকে ভাইরাল হওয়া খুব সহজ হয়ে যাবে । যে বিষয়গুলো দেখানো হলো তা আমার বাস্তব কাজের অভিজ্ঞতা তাই এই কাজগুলো করতে পারেন ।

আরও পড়ুনঃ টিকটকের হিস্টোরি ডিলিট করার উপায়

Share on facebook
Facebook
Share on twitter
Twitter
Share on linkedin
LinkedIn
Share on pinterest
Pinterest
Share on telegram
Telegram

আমাদের সাথে সোশ্যাল মিডিয়াতে থাকতে

আমাদের ফেসবুক পেজ এই লিংকে ক্লিক করুন

আমাদের সাথে গুগল নিউজে থাকার জন্য ফলো করুন এই লিংককে ক্লিক করুন

ফেসবুক গ্রুপে আপনার যেকোনো প্রশ্ন/মতামত এই লিংকে ক্লিক করুন

আমাদের সাথে টুইটারে থাকেতে এই লিংকে ক্লিক করুন

আমাদের সাথে পিন্টারেস্টে থাকতে এই লিংকে ক্লিক করুন

সব কিছু একই সাথে পেতে  https://techzoombd.com

Leave a Comment

Your email address will not be published.

Latest Post

আরও অন্য বিষয়ে পড়ুন

x